Home / মিডিয়া নিউজ / পরীমণির প্রথম প্রেম, কেমন ছিল?

পরীমণির প্রথম প্রেম, কেমন ছিল?

প্রথম প্রেমের কথা ভুলতে পারে ক’জন? কেউ পারে না। কখনো না কখনো প্রথম প্রেম মানুষকে ভাবায়,

কাঁদায় আবার হাসায়ও। আর এই প্রথম প্রেমের স্মৃতি নেই, এমন মানুষ বোধ হয় পৃথিবীতে খুঁজে পাওয়া মুশকিল।

তবে একেক জনের কাছে এই প্রথম প্রেমের অভিজ্ঞতা একেক রকম। আজ সেই প্রথম প্রেমের কথা বলবেন

ঢাকাই সিনেমার আলোচিত নায়কিা পরীমণি। ‘তখন আমি পিরোজপুর ভগিরাতপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রী।

স্কুলের প্রধান শিক্ষক আমার নানা। বুঝতেই পারছেন, স্কুলে কেউ আমাকে প্রেমের প্রস্তাব দিতে সাহস পায়নি।

আমি তখন নবম শ্রেণিতে, জুলিয়া নামে আমার এক বান্ধবীর কাছ থেকে জানতে পারি যে পাশের গ্রামের অনিক নামে একটি ছেলে আমাকে খুব পছন্দ করে। ছেলেটি তখন কলেজে পড়ে। আমাদের বাসার পাশেই এক স্যারের কাছে পড়তে যেতাম। দেখতাম ছেলেটি দূরে মোটরসাইকেলে বসে আছে আমাকে দেখার জন্য। দূর থেকে ছেলেটির চেহারা তেমন বোঝা যেত না।

এভাবে প্রতিদিনই ছেলেটি আমাদের গ্রামে আসত। স্যারের বাসায় যাওয়া-আসার পথে ছেলেটিকে দূরে বসে থাকতে দেখতাম। একসময় ছেলেটির প্রতি আমারও কিছুটা ভালো লাগা তৈরি হয়। একদিন ছেলেটি ‘আই লাভ ইউ’ লিখে একটি কার্ড জুলিয়াকে দিয়ে আমার কাছে পাঠায়। মনে হলো, অক্ষরগুলো ছেলেটি রক্ত দিয়ে লিখেছে। ছেলেটির সঙ্গে আমার দেখা হবে।

গ্রামের পাশে একটি সেতু ছিল। ওখানেই আমাদের দেখা হবে। ছেলেটির সঙ্গে প্রথম দেখা করতে যাচ্ছি। মনের মধ্যে দারুণ এক অনুভূতি কাজ করছিল। কাছে যেতেই ছেলেটির মধ্যে লজ্জা লজ্জা ভাব বুঝতে পারলাম। তাকে জিজ্ঞেস করলাম, ‘তুমি কি রক্ত দিয়ে এই কার্ডে লিখেছ?’ ছেলেটি হাত দুটি পেছনে লুকিয়ে মোটরসাইকেল নিয়ে দ্রুত চলে যায়।

পরে জানতে পারি, সত্যিই সে এই কাজটিই করেছিল। এরপর থেকে কেন জানি ছেলেটিকে আর আমাদের গ্রামে আসতে দেখিনি। ধীরে ধীরে আমার মধ্যেও ছেলেটির প্রতি ভালো লাগার অনভূতিটা কমে যায়। একসময় স্কুল শেষ করে ঢাকায় এসে কলেজে ভর্তি হই। চলচ্চিত্রের সঙ্গে যুক্ত হয়ে পড়ি। ব্যস্ততাও বেড়ে যায়। ছেলেটির সঙ্গে আর দেখা হয়নি।’-প্রথম আলো হতে সংগৃহিত

Check Also

চিত্রনায়ক রুবেলের কাছে পপি ‘স্পেশাল’!

ঢাকাই ছবিতে মার্শাল আর্ট ব্যবহার যার মাধ্যমে সেই চিত্রনায়ক রুবেল বাংলা ছবির দর্শকদের অনেক জনপ্রিয় …

Leave a Reply

Your email address will not be published.