Home / মিডিয়া নিউজ / এ যেন ৯০ দশকের সেই মৌসুমী

এ যেন ৯০ দশকের সেই মৌসুমী

তুমুল জনপ্রিয় ছায়াছবি ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ ছবিটি দিয়ে ঢালিউডে অভিষেক হয়েছিল ‘প্রিয়দর্শিনী’

খ্যাত চিত্রনায়িকা আরিফা পারভিন মৌসুমীর। একই ছবিতে অভিষেক করেছিলেন প্রয়াত সুপারস্টার

নায়ক সালমান শাহও। এরপর আর দুজনকে পেছনে তাকাতে হয়নি। অভিনয় করতে থাকেন

একের পর এক ছবিতে। ওই সময় ঢালিউডের সবচেয়ে ব্যস্ত দুই তারকা ছিলেন সালমান শাহ ও মৌসুমী।

বাংলা ছবির রোমান্সের রাজাকে মৃত্যু এসে নিয়ে গেছে সেই ১৯৯৬ সালে। তবে মৌসুমী এখনও অভিনয় করে চলেছেন সমানে। শুধু অভিনয়ই করছেন না, নব্বইয়ের দশকের সেই ব্যস্ততা যেন ফিরে এসেছে তার ক্যারিয়ারে। বর্তমান কাজের ফিরিস্তি অন্তত সে কথাই বলছে।

এরই মধ্যে তিনটি ছবির শুটিং ও ডাবিংয়ের কাজ সম্পন্ন করেছেন একাধিক জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত এই নায়িকা। সেগুলো হলো- সরকারি অনুদানে নির্মিত মির্জা সাখাওয়াত হোসেন পরিচালিত ‘ভাঙ্গন’, আশুতোষ সুজন পরিচালিত ‘দেশান্তর’ এবং বেসরকারিভাবে নির্মিত জাহিদ হোসেন পরিচালিত ‘সোনার চর’।

সেই ব্যস্ততার রেশ না কাটতেই জাহিদ হোসেনের পরিচালনায় ‘ছিটমহল’ ও ‘কানাগলি’ নামে আরও দুটি নতুন ছবিতে কাজ করতে চলেছেন মৌসুমী। দুটি ছবিতেই মৌসুমীর বিপরীতে তার বাস্তবের স্বামী ওমর সানীর অভিনয় করার কথা রয়েছে। কয়েক দিন আগে ‘সোনার চর’ ছবিতেও এই তারকা দম্পতিকে একসঙ্গে দেখা যায়।

ছবির কাজ নিয়ে এমন তুমুল ব্যস্ততা নব্বইয়ের দশকে এবং পরবর্তী কয়েক বছরে ছিল মৌসুমীর। মাঝে কয়েক বছর কাজ করেছেন একেবারেই কম। ২০২১ সালের শেষ দিক থেকে বর্তমান পর্যন্ত ছবির কাজ নিয়ে অভিনেত্রীর যে ব্যস্ততা, তা যেন সেই নব্বইয়ের দশকের স্বর্ণালী দিনে ফিরিয়ে নিয়ে গেছে তাকে।

৪৮ বছর বয়সী মৌসুমীর দাবি, ‘আমার কাছে প্রতিনিয়তই অনেক ছবির প্রস্তাব আসে। গল্প এবং চরিত্র পছন্দ হলে এবং সেই চরিত্রকে ফুটিয়ে তুলতে যত কষ্টই হোক আমি করি। ‘ভাঙ্গন’, ‘দেশান্তর’ এবং ‘সোনার চর’ নামে যে তিনটি ছবির কাজ শেষ করেছি, সেগুলো দর্শকের ভালোলাগার মতো জীবনঘনিষ্ঠ ছবি। ‘ছিটমহল’ এবং ‘কানাগলি’ও তাই। যা আমাকে অভিনয়ে আরেও অনেক বেশি অনুপ্রাণিত করছে প্রতি মহূর্তে।’

Check Also

চিত্রনায়ক রুবেলের কাছে পপি ‘স্পেশাল’!

ঢাকাই ছবিতে মার্শাল আর্ট ব্যবহার যার মাধ্যমে সেই চিত্রনায়ক রুবেল বাংলা ছবির দর্শকদের অনেক জনপ্রিয় …

Leave a Reply

Your email address will not be published.