Home / মিডিয়া নিউজ / পূর্ণিমা বিয়ে করায় বাপ্পীর আবেগঘন পোস্ট

পূর্ণিমা বিয়ে করায় বাপ্পীর আবেগঘন পোস্ট

দ্বিতীয় বিয়ের খবরে আলোচনায় জনপ্রিয় অভিনেত্রী দিলারা হানিফ পূর্ণিমা। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বিয়ের খবর গণমাধ্যমকে নিজেই প্রকাশ করেন পূর্ণিমা।

আর সে খবরের পর পরই পূর্ণিমার উদ্দেশ্যে সময়ের আলোচিত চিত্রনায়ক বাপ্পী চৌধুরী

ফেসবুকে লিখেছেন, ‘একবার বলে যাও কেন আমার হলে না।’

বাপ্পীর এমন আবেগী পোস্টে বিভ্রান্তিতে পড়েছেন সিনেপ্রেমীদের অনেকে। তাদের প্রশ্ন – পূর্ণিমার সঙ্গে কি সম্পর্ক ছিল যে, এমন কথা বললেন বাপ্পী!

আসলে গোটা ব্যাপারটাই হৃদয়ের অনুভূতির। মূলত: আসিফ আকবরের একটি জনপ্রিয় গানের প্রথম ৬ লাইন লিখেছেন ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ-২’ তারকা।

অনেকেই হয়ত জানেন না, নায়িকা হিসেবে পূর্ণিমাকে বেশ পছন্দ বাপ্পীর।

এর আগেও পূর্ণিমার প্রতি নিজের ভালোলাগার কথা প্রকাশ করেছিলেন বাপ্পী। গত বছরের ১১ জুলাই পূর্ণিমার জন্মদিনে তাকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বাপ্পী বলেছিলেন, ‘আপনি আমার ক্রাশ। এজন্য এখনও বিয়ে না করে আপনার জন্য অপেক্ষা করছি। শুভ জন্মদিন পূর্ণিমা আপু।’

তবে এবার প্রিয় নায়িকার বিয়ের খবরে একটু বেশি-ই বিষন্ন বাপ্পীর মন।

সে কথা অকপটেই জানাতে বাপ্পী ফেসবুকে নবদম্পতির ছবি দিয়ে ক্যাপশনে আসিফের যে গানটি লিখলেন, ‘ভাবিনি কখনো যাবে চলে, এভাবে আমাকে একা ফেলে, স্বপ্ন নিজের হাতে ভাঙলে তুমি, একা কেঁদে কেঁদে ক্লান্ত আমি, প্রতিশোধ নেবে নাও আমি বাধা দেব না, একবার বলে যাও কেন আমার হলে না?’

গানের শেষে বাপ্পী লিখেছেন, ‘তবুও অভিনন্দন!’

উল্লেখ্য, গত ২৭ মে পারিবারিকভাবে বিয়ে করেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী দিলারা হানিফ পূর্ণিমা।

বিচ্ছেদের গুঞ্জন শোনা গেলেও এর আগে এ চিত্রনায়িকার দ্বিতীয় বিয়ের খবর জানা যায়নি। এমনটি চলচ্চিত্রপাড়াও সেভাবে জানত না।

প্রসঙ্গত, অভিনেত্রী দিলারা হানিফ পূর্ণিমার এটি দ্বিতীয় বিয়ে। তার প্রথম স্বামীর নাম আহমেদ ফাহাদ জামাল। সে সংসারে আরশিয়া উমাইজা নামে পূর্ণিমার একটি মেয়েও আছে। তার বর্তমান স্বামীর নাম আশফাকুর রহমান রবিন। একটি বহুজাতিক কোম্পানির বিপণন বিভাগের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা। লেখাপড়া করেছেন অস্ট্রেলিয়ার সিডনির একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে।

Check Also

চিত্রনায়ক রুবেলের কাছে পপি ‘স্পেশাল’!

ঢাকাই ছবিতে মার্শাল আর্ট ব্যবহার যার মাধ্যমে সেই চিত্রনায়ক রুবেল বাংলা ছবির দর্শকদের অনেক জনপ্রিয় …

Leave a Reply

Your email address will not be published.