Home / মিডিয়া নিউজ / গরু খেলেই দোষ, যা বললেন মমতা

গরু খেলেই দোষ, যা বললেন মমতা

ব্যাপক সমালোচনার পর মাংস খাওয়ার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়া থেকে সরিয়ে নেন বলিউড অভিনেত্রী

কাজল। আর এ ভিডিও নিয়ে যাঁরা সমালোচনা করছেন, তাঁদের ওপর বেজায় চটেছেন পশ্চিমবঙ্গের

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি এই সমালোচনার নিন্দা জানিয়ে বলেন, ’অন্যেরা কী খাবে, সেটা

নির্ধারণ করে দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে।’ এটিকে তিনি বিপজ্জনক পরিস্থিতি বলে উল্লেখ করেন। টিএনএন-এর সূত্র উল্লেখ করে এমনটি জানিয়েছে এনডিটিভি। যদিও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মন্তব্য করার সময় কোনো নাম উল্লেখ করেননি।
মমতা বলেন, ’আমি সেই অভিনেত্রীর নাম বলতে চাই না। তিনি শাহরুখ খানের বিপরীতে অনেক ছবিতে অভিনয় করেছেন। সম্প্রতি তিনি অনলাইনে একটি ভিডিও পোস্ট করেছিলেন, যা তাঁকে বিরক্ত করেছিল। তিনি স্পষ্ট করেই বলেছেন, এটি গরুর মাংস নয়, মহিষের মাংস। এটি বিপজ্জনক পরিস্থিতি।’

ভারতের বিভিন্ন জায়গায় গো-মাংস বিক্রি নিষিদ্ধ করা হলেও মমতা এর বিরোধিতা করে ২০১৫ সালে মুসলমানদের এক সমাবেশে বলেন, ’আপনি যা খেতে চান, তা আপনার ব্যক্তিগত পছন্দ।’ এর আগে রোববার কাজল বন্ধুদের সঙ্গে মাংস খাওয়ার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করলে স্বল্প সময়ের মধ্যে সেটি নেট দুনিয়ায় হৈচৈ ফেলে দেয়। নানা রকম নেতিবাচক সমালোচনার সম্মুখীন হতে হয় কাজলকে। এরপর কাজল অনেকটা বাধ্য হয়ে ভিডিওটি সরিয়ে নেন। সেই সঙ্গে সেটি গো-মাংস নয় বলে টুইটারে ভক্তদের জানান। তিনি টুইটারে লেখেন, ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের কোনো ইচ্ছা ছিল না তাঁর। “যে ভিডিও দেখে অনেকে বলছেন খাবার টেবিলে গরুর মাংস, আসলে সেটি গরুর মাংস নয়। ওখানে যা দেখানো হয়েছিল তা ছিল ’বাফেলো মিট’ বা মহিষের মাংস, যা আইনতভাবে বৈধ মাংস।”sottobarta

Check Also

চিত্রনায়ক রুবেলের কাছে পপি ‘স্পেশাল’!

ঢাকাই ছবিতে মার্শাল আর্ট ব্যবহার যার মাধ্যমে সেই চিত্রনায়ক রুবেল বাংলা ছবির দর্শকদের অনেক জনপ্রিয় …

Leave a Reply

Your email address will not be published.