Home / মিডিয়া নিউজ / আর নির্যাতিত হতে চাই না: তিন্নি

আর নির্যাতিত হতে চাই না: তিন্নি

আবারও সংসার ছেড়েছেন তিন্নি। এতদিন লোকমুখে গুঞ্জন থাকলেও শনিবার (১৩ আগস্ট) নিজের

ফেসবুক দেয়ালে নিজেই স্পষ্ট করে জানালেন, ঘর ছেড়েছেন তিনি। স্বামী আদনান হুদা সাদের

বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন নির্যাতনের। এমন স্ট্যটাসের সত্যতা জানতে তিন্নির সঙ্গে মুঠোফোনে কথা হয়।

বাংলা ট্রিবিউনকে তিনি বলেন, ‘যা লিখেছি পুরোটাই সত্যি। আমি সাদের ঘর ছেড়ে দিয়েছি। গৃহবন্দি থেকে আর নির্যাতিত হতে চাই না।’ ঘর ছেড়ে কোথায় উঠেছেন, কী ধরনের নির্যাতন করতেন ইত্যাদি প্রসঙ্গে বেশি কিছু বলতে চাননি শ্রাবস্তী তিন্নি। ‘সময় করে সব বলবো। এখন রাখছি।’ এই বলে ফোন রাখলেন। তবে তার সঙ্গে ফোনালাপে অনুমান করা গেছে, তিনি সুস্থ কিংবা স্বাভাবিক নন। বেশ বিধ্বস্ত। তিন্নির ফেসবুক স্ট্যাটাস।

আজ শনিবার (১৩ আগস্ট) নিজের ফেসবুক পেজে বাংলা-ইংরেজি মিলিয়ে লেখা তিন্নির পোস্ট-এর অনুবাদ করলে এমন দাঁড়ায়, ‘আমার সঙ্গে অন্যায় হলো। সাদ এখন নিজের প্রতারণার কথা প্রকাশ্যে ঔদ্ধত্য নিয়ে বলে বেড়ায়। এটা তার অসুস্থতা এবং সে আমাকে দিনরাত বোকা বানিয়ে অপকর্ম করে বেড়ায়। শুধু তাই নয়, সে আমাকে বন্দি রেখে রীতিমতো নির্যাতন করেছে। এবং নিয়মিত এই যন্ত্রণা সহ্য করতে না পেরে তার বাসা ছেড়ে দিয়েছি।’ এই স্ট্যাটাসের সঙ্গে তিন্নি যুক্ত করেছেন তার ছোট কন্যার ছবি।

আদনান ফারুক হিল্লোলের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর মিডিয়া থেকে পুরোটাই আড়াল হন তখনকার শীর্ষ তারকা তিন্নি। কন্যা ওয়ারিশাকে নিয়ে থাকতেন ইস্কাটনস্থ বাবা-মায়ের বাসায়। গেল বছর খবর মিলেছে ২০১৪ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি সাদের সঙ্গে বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হন তিন্নি। এই সংসারে একটি কন্যাসন্তানও রয়েছে তাদের।

দীর্ঘ বিরতির পর গত বছর সেপ্টেম্বরে মা কস্তুরী দত্ত মজুমদারের লেখা একটি নাটকের মাধ্যমে অভিনয়ে প্রত্যাবর্তন হয়েছিলো তার। ‘একই বৃন্তে’ নামে এ নাটকটি পরিচালনা করেন সুজন শাহরিয়ার। এরপর গেল মার্চে ‘চেকপোস্ট’ নামের আরেকটি নাটকেও অভিনয় করেন তিনি। এরপর আর কোনও নাটকের খবর পাওয়া যায়নি।-বাংলা ট্রিবিউন

Check Also

চিত্রনায়ক রুবেলের কাছে পপি ‘স্পেশাল’!

ঢাকাই ছবিতে মার্শাল আর্ট ব্যবহার যার মাধ্যমে সেই চিত্রনায়ক রুবেল বাংলা ছবির দর্শকদের অনেক জনপ্রিয় …

Leave a Reply

Your email address will not be published.