Home / মিডিয়া নিউজ / কুকুর রক্ষার দাবিতে রাজপথে জয়া- নওশাবা

কুকুর রক্ষার দাবিতে রাজপথে জয়া- নওশাবা

রাজধানীর সাত মসজিদ রোডের ১০ নম্বর সড়ক! করোনার মধ্যেই মানুষের জটলা।

আছে আদুরে কুকুরদের ভিড়। কেউ কোলে করে নিয়ে হাজির হয়েছেন প্রিয় পোষ্যদের।

আর সড়কের দেয়ালজুড়ে যে কর্ম চলছে তার পুরোটাজুড়েই রয়েছে কুকুর ও বেড়ালের

ছবিতে আঁকা নানা বার্তা। যার একটি এমন, ‌‘ঢাকা শুধু মানুষের না, প্রাণী ও প্রকৃতিরও।’

আবার চোরের বয়ানে আরেকটি চিত্রকর্ম আছে এমন, ‌‘কুকুরের জ্বালায় ঠিকমতো চুরিও করতে পারি না।’

এ জটলা কিংবা ভিড় পথকুকুরদের রক্ষার জন্য। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) ৩০ হাজার কুকুর স্থানান্তর করতে যাচ্ছে।

এ খবরে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান। তিনি অংশ নিচ্ছেন বিভিন্ন প্রতিবাদী উদ্যোগে। একইসঙ্গে সোশ্যাল মিডিয়ায় ধারাবাহিকভাবে তুলে ধরছেন বিভিন্ন বার্তা। এবার ‘আরেকটু প্রাণবিক, মানবিক’ হওয়ার আহ্বান জানালেন একাধিকবার জাতীয় পুরস্কার-জয়ী এ নায়িকা। তিনি বলেন, পথকুকুরের ওপর টিকা কর্মসূচি চালানোর ব্যর্থতা ঢাকতে তাদের ওপর এ জাতীয় নিষ্ঠুরতা চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

অভিনেত্রী নওশাবা বলেন, ‘করোনার অলিখিত লকডাউনের মধ্যেই আমি আমার কুকুরকে হারিয়েছি। অসুস্থতার কারণে সে মারা যায়।

পিপল ফর অ্যানিম্যাল ওয়েলফেয়ার লকডাউনের মধ্যেই তার কবরের ব্যবস্থা করে। আমি যখন শুনি তারা এমন একটি আয়োজন করছে – বলেছি, ‘আমার কোনও ইনভাইটেশন লাগবে না আমি চলে আসব।’ আমি নিজেও পেইন্টার। কিন্তু এখানে যারা কাজ করছেন, তাদের সামনে আঁকার সাহস পাইনি। সত্যি, আমাদের প্রাণবিক ঢাকা দরকার।’’

জয়া ফেসবুকে লিখলেন, দেশের প্রাণী নিষ্ঠুরতা আইন ২০১৯ অনুযায়ী, পথকুকুরদের হত্যা করা নিষিদ্ধ। কুকুর নিধন ও অপসারণ শাস্তিযোগ্য অপরাধ।

তা সত্ত্বেও পথকুকুরদের ওপর টিকা কর্মসূচি চালানোর ব্যর্থতা ঢাকতে তাদের ওপর এ জাতীয় নিষ্ঠুরতা চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে। ঢাকার পথনিবাসী কুকুরদের সুরক্ষা দেওয়ার দাবি জানাতে তাই কভিড–১৯ এর সময় ব্যক্তিগত ঝুঁকি নিয়েও আমরা শিল্পী ও প্রাণীপ্রেমিকেরা পথে নেমেছিলাম। তারপরও শুনতে পেলাম এরই মধ্যে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন কিছু পথকুকুরকে মাতুয়াইলে সরিয়ে নিয়েছে। আমরা আশঙ্কা করছি, এটি সবে শুরু। শিগগিরই ঢাকা কুকুরশূন্য করা হবে।

তিনি আরও লিখেছেন, ‘প্রাণীগুলো নির্বাক বলে ওদের পক্ষে কেউ দাঁড়াবেন না? প্রকৃতির ওপর আমাদের সীমাহীন নিষ্ঠুরতার পরিণাম করোনার

এই অতিমারির পরও আমরা মনের চোখ খুলব না? এবার আমরা থামি। আরেকটু প্রাণবিক হই। মানবিক হই।’ এর আগে, গত মাসের শেষ দিকে রাজধানীর সাত মসজিদ রোডের ১০ নম্বর সড়ক জুড়ে আয়োজন করা হয় দেয়ালচিত্রের। কুকুর-বেড়ালদের নিয়ে এই দেয়ালচিত্র প্রদর্শনীতে হাজির হয়েছিলেন জয়া আহসান ও কাজী নওশাবা আহমেদ।

Check Also

চিত্রনায়ক রুবেলের কাছে পপি ‘স্পেশাল’!

ঢাকাই ছবিতে মার্শাল আর্ট ব্যবহার যার মাধ্যমে সেই চিত্রনায়ক রুবেল বাংলা ছবির দর্শকদের অনেক জনপ্রিয় …

Leave a Reply

Your email address will not be published.